ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার 4 টি সহজ পন্থা ।

ways to learn digital marketing bengali

মিন্টলির আগের আর্টিকেলে আমরা মার্কেটিং এ কেরিয়ারের কেমন সুযোগ সুবিধা আছে সেইসব বিষয়ে আলোচনা করেছি। 


McKinley এর রিপোর্ট অনুযায়ী, এই সমস্ত মার্কেটিং জবের মধ্যে 90% মার্কেটিং নির্ভর করে ডিজিটাল মার্কেটিং এর ওপর। 


তাই মিন্টলির আজকের বিষয়ই হলো কোন কোন উপায় অবলম্বন করে ছাত্রছাত্রীরা, আজকের সময়ে দাঁড়িয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে পারে ও উজ্জ্বল একটি ভবিষ্যত গড়তে পারে। 

আজকের বিষয় 

  •  ডিজিটাল মার্কেটিং কি ও এর চাহিদা
  • ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে কিভাবে এগোনো উচিত?
  • ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার 4 টি সহজ  পন্থা ।
  1. ঘরে বসে ফ্রি তে ডিজিট্যাল মার্কেটিং শেখার উপায়
  2. অনলাইন কোর্সের মাধ্যমে শেখার উপায় ও কয়েকটি উল্ল্যেখযোগ্য প্লাটফর্ম 
  3. অফলাইন কোর্সের মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং
  4. ইন্টার্নশিপ ও ক্লায়েন্টের সাথে কাজ                     

ডিজিটাল মার্কেটিং কি ও এর চাহিদা

মার্কেটিং সম্মন্ধে কমবেশি ধারণা আমাদের সবারই আছে।

মার্কেটিং হলো এমনি একটি পন্থা যা অবলম্বন করে কোনো প্রোডাক্টের সেলস বৃদ্ধি করা হয়। 
মার্কেটিং শুধুমাত্র প্রোডাক্ট সেলসেই কেন্দ্রীভূত নয়। কোনো রকম লিডস সংগ্রহ করাও মার্কেটিংয়ের আরও একটি উদেশ্য।


এতদিন মার্কেটিং শুধুমাত্র লোকাল মার্কেট বা অফলাইন এর মাধ্যমেই হত। 
যুগ যত এগোচ্ছে সব ধরণের পরিষেবা সর্ব পর্যায়ে পৌঁছে দেবার লক্ষে মার্কেটিং ধীরে ধীরে অনলাইন দুনিয়ায় পা রাখছে। 
এর থেকেই ডিজিটাল মার্কেটিং এর ধারণার জন্ম। যেখানে ইন্টারনেট কে ব্যবহার করে বেশি সংখ্যক মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া সম্ভব। 

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে কিভাবে এগোনো উচিত?

এমত অবস্থায় এটা বলাই যায়, ডিজিটাল মার্কেটিং আগত সময়ে খুবই জনপ্রিয় একটি কেরিয়ারের উৎস হতে চলেছে। 


কিন্তু ছেলেমেয়েরা কিভাবে এগোবে একজন সফল ডিজিটাল মার্কেটার হবার জন্য? 


প্রথমেই বলে রাখি , ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক ভাগ আছে। আপনারা চাইলেই পুরো বিষয়টি কে আয়ত্ত না করে বিভিন্ন ভাগেও কাজ শিখে চাকরি করতে পারেন । 
এই ভাগ গুলি হলো

  1. সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) 
  2. সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (SEM)
  3. পি.পি.সি 
  4. সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং (SMM)
  5. কন্টেন্ট মার্কেটিং
  6. ইমেল মার্কেটিং
  7. ভিডিও মার্কেটিং
  8. লিংক বিল্ডিং
  9. এনালিটিক্স
  10. কাস্টমার রিলাশনশিপ ম্যানেজমেন্ট
  11. ডাটা মাইনিং
  12. আরোও অনেক কিছু…. 

আপনার পছন্দসই যেকোনো ভার্টিক্যালে ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারেন ।
ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার 4 টি সহজ  পন্থা

ঘরে বসে ফ্রি তে ডিজিট্যাল মার্কেটিং শেখার উপায়

 কোনোকিছুই শেখা অসম্ভব নয় যদি মন থেকে জিনিসটার প্রতি আগ্রহ থাকে। 


এক্ষেত্রেও, ঘরে বসে বিনামূল্যে নিজস্ব চাহিদায় ডিজিটাল মার্কেটিং শেখা সম্ভব।
এর জন্য শুদু প্রয়োজন একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ এবং তার সাথে ইন্টারনেট সংযোগ। 


অনলাইনে এমন অনেক ব্লগ বা ওয়েবসাইট আছে যারা ফ্রি তে ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। 


আমি যে সমস্ত ব্লগ গুলি কে বিশেষ ভাবে ফলো করার উপদেশ দেব তাদের মধ্যে নেইল প্যাটেল এর ব্লগ, ব্যাকলিঙ্ক ইত্যাদী খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনারা চাইলে তাদের মেল সাবস্ক্রিপশন নিতে পারেন এতে করে ডিজিটাল মার্কেটিং সংক্রান্ত অনেক ব্লগই আপনার মেল বক্সে খুব সহজেই পেতে পারবেন। 


এবার দেখে নেওয়া যাক অনলাইনের মাধ্যমে যদি সার্টিফিকেট সমেত ফ্রি তে ডিজিটাল মার্কেটিং শেখা যায় তাহলে কেমন হয় ? এবং কোন কোন পন্থায় তা সম্ভব।


হ্যাঁ! ঠিকই পড়েছেন। খোদ গুগল থেকে শুরু করে সেমরাস একাডেমি, ক্লিক মাইন্ডেড, হাবস্পট, কপি ব্লগার, অপটিমনস্টার ইত্যাদী ওয়েবসাইট গুলি ফ্রী তে ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে এবং শুদু তাই নয়, কোর্স সমাপ্তিতে সার্টিফিকেটও প্রদান করে থাকে। 

অনলাইন কোর্সের মাধ্যমে শেখার উপায় ও কয়েকটি উল্ল্যেখযোগ্য প্লাটফর্ম 


অনলাইন কোর্সের মাধ্যমে শেখার উপায় ও কয়েকটি উল্ল্যেখযোগ্য প্লাটফর্ম-এ  
এবার আশা যাক।

যারা ভালো ভাবে কিছু মূল্যের বিনিময়ে সরাসরি মেন্টরের তত্বাবধানে থেকে শিখতে চাইছেন তারা কোন কোন জায়গায় ভর্তি হতে পারবেন। কারণ যতই ফ্রিতে শেখার সুযোগ থাকুক না কেন এমন অনেক বিষয়ই আছে যেগুলো পেইড কোর্সেই শিখতে পারা সম্ভব। 


পেইড কোর্সগুলি দু ধরণের হয়। 

1। অনলাইন পেইড কোর্স 

2। অফলাইন পেইড

কোর্স অনলাইনে সার্চ করলেই এমন অনেক পেইড কোর্সের তালিকা পেতে পারবেন।

সঠিক কোর্স, তালিকা ও রেটিং দেখেই সিদ্ধান্ত নিন কোন কোর্সটি আপনার পক্ষে উপযুক্ত হবে। উডেমী, ই.সি.টি, উডাসিটি, ক্লিকমাইন্ডেড ইত্যাদি প্ল্যাটফর্ম অনলাইন ডিজিটাল মার্কেটিং এর জন্য খুবই উল্লেখযোগ্য।


অফলাইন ডিজিটাল মার্কেটিং


অনলাইনের পাশাপাশি অফলাইনেও ডিজিটাল মার্কেটিং শেখা সম্ভব এবং অফলাইনের একটি প্রধান কারণ হলো অনেক অফলাইন সংস্হা সার্টিফিকেট এর সাথে সাথে পরবর্তীতে বিভিন্ন কোম্পানিতে প্লেসমেন্ট এর সুযোগ করে দেয়। 


ইন্টার্নশিপ ও ক্লায়েন্টের সাথে কাজ 


শেখার কোনো শেষ নেই। বিশেষত ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের মতো প্লাটফর্মে অনবরত নিজেকে আপডেট রাখতে হয়। 


তাই সরাসরি ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্ম গুলির মাধ্যমে বিভিন্ন কায়েন্টের সাথে কাজ করতে করতেও কাজ শেখা সম্ভব। এতে প্রাকটিক্যাল এক্সপেরিয়েন্স বৃদ্ধি পায় যা পরবর্তী কালে আপনাকে আরও ভালো কাজের সুবিধা দিতে সক্ষম।


আশা করা যায় ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কীত প্রশ্নের সাময়িক উত্তর আমরা দিতে পেরেছি। এরপর সঠিক মানসিকতা ও কিছু শেখার চাহিদাকে অবলম্বন করে এগিয়ে যান। সফলতা নিশ্চিত।